1. admin@bbcnews24.news : admin :
পটুয়াখালীতে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি - BBC NEWS 24
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
গিটার পাগল রোমো রোমিওর এগিয়ে চলা গাজীপুরে ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার এক মীরসরাইয়ে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে বাইসাইকেল ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ মিরসরাইয়ের মঘাদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত মীরসরাইয়ে আরশিনগর ফিউচার পার্কে ৮ দিনব্যাপী লালন ও বাউল উৎসব শুরু বাস্তব জীবনের গল্প নিয়ে পিজিতের মিউজিক্যাল ফিল্ম”ভুল” বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৪বছর পূর্তি উপলক্ষে দিবসটি পালন করলো লংগদু সেনা জোন ৫ মাসের অপহৃত শিশু উদ্ধার- আসামী গ্রেফতার এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য যুবলীগ নেতা নোবেলের শুভ কামনা পার্বত্য চুক্তির দুইযুগ পূর্তি: পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানিতে কাঙ্খিত শান্তি ফিরেনি

পটুয়াখালীতে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি

বিবিসি নিউজ ২৪ ডেস্ক
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২১
  • ২২ বার পঠিত

মোঃইমরান হোসেন,পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃপটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে সাংবাদিক পরিচয়ে একটি বিদ্যালয় থেকে মোটা অঙ্কের চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার সুবিদখালী বাজারের মোঃ আল-আমিন প্রিন্স নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের উত্তর সুবিদখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বিদ্যালয়টির ভবনের সংস্কার কাজের সময় বঙ্গবন্ধুর ছবিতে রং লেগে যায়। এতে কর্তৃপক্ষ ছবিটি নামিয়ে রাখে। এ খবর পেয়ে প্রিন্স বিদ্যালয়ে গিয়ে প্রধান শিক্ষককের কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে।

ওই বিদ্যালয়ের কিছু পরিত্যক্ত কাঠ মাঠে পড়ে থাকলে ৯ বছরের একটি শিশু তা বাড়িতে নিয়ে যায়। এতে প্রিন্স ওই শিশুটির বাড়ি গিয়ে পরিবারের লোকজনকে ভয় দেখিয়ে তাদের কাছে ও চাঁদা দাবি করে।

শিশুটির চাচা জানান, মাঠ থেকে কিছু পুরাতন কাঠ আমার ভাতিজা বাড়ি নিয়ে আসে। এ কারণে প্রিন্স নামে একজন লোক সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে আমাদের কাছে বিশ হাজার টাকা জরিমানা চায়। জরিমানা না দিলে ১৪ বছরের জেল দিবে এবং টিভিতে দেখাবে বলে হুমকি দেন। আমরা ভয় পেয়ে ধারকর্জ করে তাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা দিয়েছি। কিন্তু জরিমানার কোন রিসিট সে দেয়নি।

উত্তর সুবিদখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসাঃ ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, ওই কাঠগুলো নষ্ট হয়ে গেছিলো। এছাড়া বিদ্যালয়ে রং করানোর সময় বঙ্গবন্ধুর ছবিতে রং লেগে গেলে ছবিটি নামিয়ে নতুন ছবি বানাতে দেই। কিন্তু এঘটনায় প্রিন্স নামের একজন বিদ্যালয়ে এসে আমার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে সে পুলিশসহ বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়।

এতে ভিত হয়ে তাকে পাঁচ হাজার টাকা চাঁদা দিয়েছি। অভিযুক্ত আল আমিন প্রিন্সের সাথে যোগাযোগ করলে সে বিষয়টি অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, বিষয়টি আমি দেখতেছি।
উল্লেখ, গত ১৩ই অক্টোবর শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে আলমিন ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়। এতে তার স্ত্রী মির্জাগঞ্জ পল্লী বিদ্যু অফিসের বিলিং সহকারী মোসাঃ হোসনেয়ারাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠান পুলিশ। যার প্রধান আসামি ছিলেন প্রিন্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ বিবিসি নিউজ ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD